হার না মানা ছাত্রদের প্রতিরোধের হরতাল আজ: নিপীড়িত নারীর আরেকবার রুখে দাঁড়াবার দিন

দ্বন্দ্ব ডেস্ক।।

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি ও ছাত্রনেতা সামিউল আলম রিচি তার ফেসবুকে লিখেছেন, “..একটা হরতালে হবেটা কি? বিচার হবে তনু হত্যার? ভাঙ্গবে কি বিচারহীনতার কারাগার? … বুঝতে এবং অনুধাবন করতে শুনুন ২ জোটের নেতৃবৃন্দের প্রচারকালীন অভিজ্ঞতার কথা।…ছাত্র নেতাদের কাছে ফোনে, কি প্রকাশ্যে। প্রতিদিনকার যাপিত জীবনের কদর্য নিপীড়ন আর অপমানের বর্ননা দিচ্ছেন মায়েরা-মেয়েরা… চুপ থেকে মেনে নেয়ার এই গুমোট অসহায়ত্ব থেকে তাঁরা বেরুতে চান! …তাঁরা কথা বলতে চান, প্রকাশ্যে চিৎকার করে প্রতিবাদ করতে চান তাঁরা।… ১০৯২ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন শুধু ২০১৫ সালে … এটি শুধু পত্রিকার রিপোর্ট … রিপোর্টের বাইরে আছে অসংখ্য নারী আর শিশুর অপমান আর নির্যাতনের গাঁথা… এই অপমানের বিপরীতে দাঁড়িয়ে সীমিত শক্তি নিয়ে প্রতিরোধের গল্প শোনাচ্ছেন ছাত্রনেতারা প্রতিদিন এই নোংরা, অসভ্য শহরের রাস্তায়… অলিতে গলীতে! … আপনিও গলা মেলান তাঁদের সাথে !…এই শহর আমাদের, এই জনপদের মালিক জনগণ! জনগণের এই শহর জনগণের এই জনপদ এবং জনগণের এই জীবনকে জনগণের দখলে নিয়ে আসুন আবার! … হরতালের প্রচারণায় নেমে আসুন নিজ নিজ অবস্থান থেকে … ২৫ হোক নিপীড়িত নারীর আরেকবার রুখে দাঁড়ানোর দিন! 

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের মেধাবী ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুসহ অব্যাহত গুম-খুন-পাশবিক নির্যাতন ও বিচারহীনতার প্রতিবাদে সোমবার সারাদেশে অর্ধদিবস হরতাল ডেকেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্য। তনু হত্যার পর থেকে শান্তিপূর্ণভাবে দুই জোটের উদ্যোগে বিচারের দাবিতে ধারাবাহিক আন্দোলন চলছে। গত ৭ এপ্রিল তনু হত্যার বিচারের দাবিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশ হামলা চালায় ও মিছিলে বাধা দেয়। ওই ঘেরাও কর্মসূচি থেকে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে তনু হত্যার বিচার দাবিতে ২৫ এপ্রিল সারাদেশে অর্ধদিবস হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করেন জোটের নেতারা।এরপর শুরু হয় হরতালের সফল করতে প্রচারণা। শনিবার হরতাল সফল করার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে দুই জোটের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। বিকালে শাহবাগে আয়োজন করা সংহতি সমাবেশ।

সামিউল আলম রিচির মতোই এ হরতালে সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন দেশের প্রতিবাদী, গণতান্ত্রিক ও প্রগতিমনা মানুষেরা। হরতালের সমর্থনে সোমবার রাজপথে থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন নিজ নিজ অবস্থান থেকে।

হার না মানা ছাত্রদের প্রতিরোধের হরতাল সোমবার: নিপীড়িত নারীর আরেকবার রুখে দাঁড়াবার দিন: ছবি ফোকাস বাংলার সৌজন্যে
হার না মানা ছাত্রদের প্রতিরোধের হরতাল সোমবার: নিপীড়িত নারীর আরেকবার রুখে দাঁড়াবার দিন: ছবি ফোকাস বাংলার সৌজন্যে

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও তেল-গ্যাস-খনিজসম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব আনু মুহাম্মদ হরতালের সমর্থনে লিখেছেন, যতো দিন যাচ্ছে ততোই তনু তদন্ত নিকটবর্তী হচ্ছে ত্বকী আর সাগর-রুনীর। এটা হচ্ছে স্পষ্ট একটি মডেল যেখানে ‘খুনি বা দুর্বৃত্তদের ধরা যাবে না’ সরকারের এরকম সিদ্ধান্ত নেবার পর নাটক শুরু হয়। ধর্ষক ও খুনিদের পক্ষে সরকারের এরকম অবস্থানের কারণেই অবিরাম খুন, গুম, ধর্ষণ, নির্যাতন ঘটে চলেছে।অন্যদিকে বিনা বিচারে আটক, ক্রসফায়ার নামক খুন, সাদা পোশাকে তুলে নেয়া, গ্রেফতার ও রিমান্ড বাণিজ্য আর সেই সাথে মিথ্যা গল্প বানানো তৈরি করেছে এক ভয়ংকর পরিবেশ। পাশাপাশি কতিপয় দেশি বিদেশি গোষ্ঠীর মুনাফার উন্মাদনায় উন্নয়নের নামে দানবীয় সব প্রকল্পের শিকার হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে খুন হচ্ছে মানুষ, মিছিল করতে গেলেও পুলিশী আক্রমণ। এরকম অবস্থায় আগামী ২৫ এপ্রিল তনু হত্যাসহ অব্যাহত খুন, ধর্ষণ, গুম, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্য আহুত হরতাল হয়ে ওঠছে এক সম্মিলিত প্রতিবাদের ডাক। এই ডাকের সাথে পূর্ণ সংহতি জানাই।

8_202179

ছাত্র গণমঞ্চের সাবেক নেতা ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ছাত্রঐক্যের সাবেক সমন্বয়ক শান্তনু সুমন লিখেছেন, নানা কারণেই ২৫ এপ্রিলের হরতাল গ্রুরুত্বপূর্ণ! এই হরতালের সফলতা নির্ভর করবে দেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের সমর্থন ও অংশ গ্রহণের ওপর! তাই সব শ্রেণী পেশার মানুষের পাশাপাশি আমরা চাইব বিশেষত নারীরা এই কর্মসূচীকে প্রকাশ্য সমর্থনে ও অংশ গ্রহণে এগিয়ে আসুক! এই লড়াই নারীর সক্রিয় অংশ গ্রহণ ছাড়া বিজয়ী হতে পারে না!

আমরা সকল মানবিক মানুষের প্রতি আহবান জানাই, এই আন্দোলনের প্রতি যে যেভাবে পারেন আপনাদের সমর্থন প্রকাশ করুন, সম্ভব হলে কর্মসূচীতে অংশ নিন। ভাই-বোন, বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স্বজন সকলকে এই বার্তা জানান যে এই লড়াইয়ে বিজয়ী না হলে আমরা আমাদের মা-বোনদের ‪তনু হবার হাত থেকে বাঁচাতে পারব না!

ইমতিয়াজ মাহমুদ লিখেছেন, আগামীকাল (সোমবার) আমি অফিসে আসবো না। আমাদের এখন কোর্টের ছুটি চলছে বলে কোর্টে যাওয়ার এমনিতেও কোন দরকার নাই। পেশাগত কোন কাজও আমি আগামীকাল (সোমবার) বিকাল পর্যন্ত করবো না। হরতালের সময়টাতে কাল আমি কোন মোটর গাড়ীতেও উঠবো না। কাল হরতাল। কালকের এই হরতালের ডাকে সাড়া দিয়ে আমি আমার মতো হরতাল পালন করবো। আপনারা যারা ভদ্রলোক আছেন, আর সচেতন আছেন, আপনাদেরকেও জোড়হাতে অনুরোধ করবো, চলেন হরতালটা করি।

হরতালটা আপনাকে আপনার নিজ দায়িত্বেই পালন করতে হবে। হরতাল করবেন আপনার কন্যার জন্যে, আপনার বোনের জন্যে, আপনার বান্ধবীর জন্যে আপনার প্রেমিকার জন্যে- আপনার জীবনে সকল নারীর জন্যে। বাকি আপনার ইচ্ছা।

12495109_837842403028123_1323897094490366942_n

এদিকে, রবিবার এক বিবৃতিতে দুই জোটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতোমধ্যেই ১৪ টি রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক- পেশাজীবী সংগঠন ও নারী সংগঠনসমূহ এই হরতালের সমর্থনে মাঠে নামার ঘোষণা দিয়েছে। এছাড়া অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, অধ্যাপক আহমেদ কামাল, অধ্যাপক আজফার হোসেন, গীতি আরা নাসরিন, অধ্যাপক এম এম আকাশ, শিল্পী মাহমুদুজ্জামান বাবু, শিল্পী অরুপ রাহীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, সাংস্কৃতিক কর্মী, সমাজকর্মী ও দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এই হরতালে সমর্থন জানিয়েছেন।
হরতাল সফল করতে সকাল ৬ টা থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ছাত্র নেতৃবৃন্দ শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নিবেন। এবং মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যা-, পল্টন মোড়, মৌচাক মার্কেটের সামনে, মিরপুর ১০ নম্বর গোলচত্ত্বর, সূত্রাপুর-সদরঘাট এলাকায় হরতাল সফল করতে দুই জোটের কর্মীরা মাঠে থাকবেন। এছাড়া দেশের সকল জেলা ও থানা শহরে হরতাল সফল করতে প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও সা¤্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্যের নেতা-কর্মীরা মাঠে থাকবেন। রাজনৈতিক দল ও গণসংগঠনসমূহ আগামীকাল হরতালের সমর্থনে মাঠে থাকবেন।
জোটের নেতৃবৃন্দ, জীবনের নিরাপত্তা ও তনু হত্যার বিচারের দাবিতে এই ঐতিহাসিক হরতালের সমর্থনে সর্বস্তরের মানুষকে রাস্তায় নেমে আসার আহ্বান জানান।

ছবি: ফোকাস বাংলার সৌজন্যে

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*

Latest from রাজনীতি

গো টু টপ