মামলা, লাঠিচার্জের পর এবার যবিপ্রবি বন্ধ ঘোষণা, হল ত্যাগের নির্দেশ

দ্বন্দ্ব রিপোর্ট।।

পাঁচ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের সুপারিশ বাতিলের দাবিতে চলমান ছাত্র আন্দোলন দমাতে মামলা ও মঙ্গলবারের ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের লাঠিচার্জের বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি)। একই সঙ্গে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে ছাত্রদের এবং বুধবার সকাল ৯টার মধ্যে ছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে,  ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় ৫ শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে গত ১০ এপ্রিল থেকে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন ও মানববন্ধনের মতো শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছিলেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। রবিবার  আন্দোলনরত ২৮ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তথ্য-প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হয়। এর প্রতিবাদে মঙ্গলবার শিক্ষার্থীরা সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও করেন। এসময় শিক্ষার্থীরা প্রশাসনিক ভবনে তালা মেরে ভিসিকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ করেন। ফলে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন উপাচার্যসহ কর্মকর্তারা। এ সময় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা। তবে দুপুর ২টার দিকে পুলিশের লাঠিচার্জে ছাত্ররা পিছু হটে। পরে সেখান থেকে ২৭ ছাত্রকে আটক করে পুলিশ। এর আগে গ্রেফতার করা হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী নাসিরউদ্দিন বাদলকে।

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থী নাসির উদ্দিন বাদলকে মঙ্গলবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ
ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থী নাসির উদ্দিন বাদলকে মঙ্গলবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে যশোরের সহকারী এসপি ভাস্কর সাহার নেতৃত্বে ৮ থেকে ১০ ভ্যান পুলিশ ক্যাম্পাসে ঢুকে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়।  পুলিশের হামলায় ২০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। শিক্ষার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে সন্ত্রাসীদের পক্ষ নিয়ে উপাচার্য এতোদিন তা বানচাল করার চেষ্টা করেছেন। আজকে পুলিশ দিয়ে হামলা চালিয়েছেন।

মঙ্গলবার যবিপ্রবিতে প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও করে রাখে শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গরমের ছুটি এগিয়ে এনে আগামী ২৭ এপ্রিল থেকে ১১ মে পর্যন্ত এই ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। মে মাসের শেষ সপ্তাহে গ্রীষ্মের ছুটি শুরু হওয়ার কথা ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা হায়াতুজ্জামান মুকুল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ২৬ মে থেকে গ্রীষ্মকালীন ছুটি শুরুর কথা থাকলেও বুধবার থেকে ছুটি শুরু হচ্ছে।

পুলিশ ২৭ ছাত্রকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়ার দাবি করলেও পুলিশ বলছে তাদের আটক করা হয়নি। পুলিশের এএসসি ভাস্কর সাহা বলেন, তাদেরকে আটক করা হয়নি। সোমবার ২৮ ছাত্রের নামে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে করা দুটি মামলায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ওই ছাত্রদের মধ্যে জড়িতদের আদালতে তোলা হবে। বাকিদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার পুলিশের হামলায় আহত কয়েকজন শিক্ষার্থী
মঙ্গলবার পুলিশের হামলায় আহত কয়েকজন শিক্ষার্থী

প্রসঙ্গত, আন্দোলনের জের ধরে ফেসবুকে আইডি খুলে উপাচার্য, শিক্ষক ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি করায় সোমবার বিকালে ২৮ ছাত্রের নামে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে দুটি মামলাও করেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, গত বছর ৯ ডিসেম্বর ক্যাম্পাসে ছাত্রীকে উত্যক্ত করার ঘটনা নিয়ে সন্ত্রাসী বদিউজ্জামান বাদলের মদদে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও গ্রামবাসীদের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। টানা তিন ঘণ্টার সংঘের্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫ শিক্ষার্থী আহত হন। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গঠিত তদন্ত কমিটি গত ৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডের সভায়  গঠিত তদন্ত কমিটি জিন প্রকৌশলী ও জৈব প্রযুক্তি (জিইবিটি) বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্বের একজন ছাত্রকে আজীবন, দুজনকে এক বছর করে ও অপর দুজনকে আবাসিক হল থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে। এ ছাড়া একজন নিরাপত্তাকর্মীকেও চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশও করা হয়েছে।

এরপর থেকেই ছাত্রদের বহিষ্কারের সুপারিশ বাতিলের দাবিতে ১০ এপ্রিল থেকে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলন শুরু করে শিক্ষার্থীরা। এরই ধারাবাহিকতায় আন্দোলনের ১৭তম দিন আজ মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) প্রশাসনিক ভবনে তালা মেরে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*

Latest from নির্বাচিত খবর

গো টু টপ